আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > প্রাণ > উদ্ভিদ > বীরুৎ > ক্যালেণ্ডলা মৌসুমী বীরুৎ-এর ভেষজ গুণাগুণ

ক্যালেণ্ডলা মৌসুমী বীরুৎ-এর ভেষজ গুণাগুণ

ক্যালেণ্ডুলা

ক্যালেণ্ডলা (Calendula officinalis) একটি মৌসুমী বীরুৎ জাতীয় ঔষধি উদ্ভিদ। এটি আমাদের দেশের উদ্ভিদ না হলেও অফিস বা বাড়িতে ফুলের জন্য বাগানে লাগানো হয়। এটি শীতকালীন উদ্ভিদ। শীত ঋতুতে বিভিন্ন নার্সারিতে এর চারা তৈরি করা হয়। এই প্রজাতির কাণ্ড ৬ থেকে ২০ ইঞ্চি উঁচু হয়ে থাকে। এদের পাতা সরল, একান্তর, লেনসিওলেট, রসালো, পাতার কিনার মসৃণ।

সাধারণত প্রতিমাখাল মাথায় লম্বা মঞ্জরীদণ্ডের উপর একটি মঞ্জরী সৃষ্টি হয়। ফুল তথা মঞ্জরী হলুদ বা হলুদে-কমলা বর্ণের হয়ে থাকে। ক্যালেণ্ডলা উদ্ভিদের ব্যবহার্য অংশ হলো তাজা ফুল এবং তাজা পাতা। ক্যালেণ্ডলা উদ্ভিদের প্রাপ্তিস্থান হচ্ছে দক্ষিণ ইউরোপের দেশসহ শীত প্রধান অঞ্চল। বাংলাদেশে শীতকালে প্রায় সকল বাগানেই এটিকে ফুলের জন্য লাগানো হয়ে থাকে।

রোগ নিরাময়ে ক্যালেণ্ডলা উদ্ভিদের ব্যবহার:

১. কাটা, ছিড়া বা ঘায়ের ঔষধ হিসাবেই ক্যালেণ্ডুল সর্বাধিক পরিচিত। এটি সম্ভবত হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারগণই অধিক ব্যবহার করে থাকেন। এটি একটি অতুলনীয় ঔষধ।

২. কোনো স্থান কেটে গেলে বা আঘাত লেগে ছিন্নভিন্ন হয়ে গেলে, পুড়ে গেলে অথবা ঘা হলে ক্যালেণ্ডুলা মাদার টিংচার তুলা দ্বারা বাহ্যিকভাবে প্রয়োগ করলে আশাতীত ফল পাওয়া যায়।

৩. এক আউন্স তেলের সাথে অর্থাৎ তিল তেল, অলিভ অয়েল কিংবা নারিকেল তেলে ২০ ফোটা মাদার টিংচার মিশিয়ে পুরাতন ঘায়ে ব্যবহার করা উত্তম।

৪. ক্যালেণ্ডুলার ব্যবহার রক্তপড়া বন্ধ করে, বেদনা নাশ করে, কাটা স্থান জোড়া লাগে, ক্ষত শুকায়।

৫. দাঁত উঠাতে গিয়ে রক্ত পড়তে শুরু করলে পানিতে ক্যালেণ্ডুলা। মাদার টিংচার মিশিয়ে কুলি করলে রক্ত পড়া বন্ধ হয়।

ক্যালেণ্ডুলা থেকে ঔষুধ প্রস্তুত প্রণালী:

হোমিওপ্যাথিতে ক্যালেঞ্জুলা ষোড়শ শতাব্দীতেই ঔষধ হিসেবে ব্যবহৃত হতে থাকে। ক্যালেণ্ডুলার তাজা ফুলের মণ্ড ৭০০ গ্রাম-এর সাথে ৪৩৭ সি, সি, স্ট্রং অ্যালকোহল মিশিয়ে এটিকে নিয়ম মতো ৭ থেকে ৮ দিন আলোড়িত করে ফিল্টার করে নিলে এক হাজার সি. সি. মাদার টিংচার ওষুধ (১x শক্তি) পাওয়া যায়।

আরো পড়ুন:  গাঁদা উদ্ভিদের পাতা ও ফুলের ঔষধি গুণাগুণ

তথ্যসূত্রঃ       

১. মাওলানা জাকির হোসাইন আজাদী: ‘গাছ-গাছড়ায় হাজার গুণ ও লতাপাতায় রোগ মুক্তি, সত্যকথা প্রকাশ, বাংলাবাজার, ঢাকা, প্রথম প্রকাশ ২০০৯, পৃষ্ঠা, ৯৯-১০০।

বি. দ্র: ব্যবহৃত ছবি উইকিমিডিয়া কমন্স থেকে নেওয়া হয়েছে। আলোকচিত্রীর নাম: Aiwok

Dolon Prova
জন্ম ৮ জানুয়ারি ১৯৮৯। বাংলাদেশের ময়মনসিংহে আনন্দমোহন কলেজ থেকে বিএ সম্মান ও এমএ পাশ করেছেন। তাঁর প্রকাশিত প্রথম কবিতাগ্রন্থ “স্বপ্নের পাখিরা ওড়ে যৌথ খামারে”। বিভিন্ন সাময়িকীতে তাঁর কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া শিক্ষা জীবনের বিভিন্ন সময় রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক কাজের সাথে যুক্ত ছিলেন। বর্তমানে রোদ্দুরে ডট কমের সম্পাদক।

Leave a Reply

Top
You cannot copy content of this page